কুমিল্লায় বেড়াতে গিয়ে মৃত্যু! পুলিশের মামলায় গ্রেপ্তার ৫


» মুহাম্মদ গাজী তারেক রহমান | উত্তরা নিউজ, স্টাফ রিপোর্টার | সর্বশেষ আপডেট: ১২ জুলাই ২০২০ - ০৯:২৬:১৬ অপরাহ্ন

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) প্রতিনিধি: দাউদকান্দি উপজেলার শেষ প্রান্তে ঢাকা-চট্্রগ্রাম মহাসড়কের মেঘনা গোমতি সেতুর পাদদেশে সেতুর সামান্য দক্ষিণে ব্র্যাক কোল্ড ষ্টোর সাথে গোমতি নদীর মোহনায় গত শুক্রবার নৌকা ডুবিতে ২ জন নিহতের ঘটনায় দাউদকান্দি থানায় আট (০৮) জনকে আসামী করে মামলা করা হয়েছে। দাউদকান্দি থানার মামলা নং ৭।
গত শনিবার রাতে দাউদকান্দি মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) জাহাঙ্গীর আলম খান বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। মামলার আসামী ৮ জনের মধ্যে ৫জনকে গ্রেপ্তার করে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং ৩ আসামী পলাতক রয়েছে।
মামলার এজহারে আটজনকে আসামী হিসেবে উল্লেখ করা হয়। আসামীদের মধ্যে ৫জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলো- ১। বাবু খন্দাকার (৩৫), ২। ইমদাদ (৩৮) ৩। তানিম ওরফে শুভ (২৮) ৪। আবু রায়হান মুন্না (২৬) ৫। আশিক (২৫)। অপরদিকে, পলাতক ৩ জন আসামী যথাক্রমে, রমজান (২৮) রুহুল আমিন(৫০) নৌকার মাঝি ফজলুর রহমান(৬০)।
উল্লেখ্য যে, গত বৃহঃস্পতিবার দিবাগত রাতে ঢাকা থেকে সাতজন বাবু খন্দকারের (প্রধান আসামী) কাছে মাইক্রোবাসযোগে দাউদকান্দি বেড়াতে আসে ।
রাতের খাবার শেষ করে ছোট একটি নৌকা দিয়ে মাছের প্রজেক্ট দেখতে যায়। ঠিক তখনই চলমান একটি ট্রলার এর ঢেউ নৌকাটিকে ধাক্কা দিলে তাদের নৌকায় পানি উঠে নৌকা পানিতে তলিয়ে যায়। পরে মাঝিসহ অনেকেই উপরে উঠতে পারলেও সজিব ও অনিক নামের নামে ২ যুবক নিখোঁজ হয়ে যায়।
চাঁদপুর থেকে ৬ ডুবুরির দল শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে সারা দিন চেষ্টা করেও লাশ উদ্ধার করতে পারেনি। পরে শনিবার সজিব ও অনিক নামের নামে দুই যুবকের লাশ ব্র্যাক কোল্ড ষ্টোরের পাশে পানিতে ভেসে উঠলে ফয়ার সার্ভিস এর সহযোগিতায় ৬ সদস্যের ডুবরীর দল তাদের উদ্ধার করে দাউদকান্দি মডেল থানায় লাশ দুটি হস্তন্তর করে।
দাউদকান্দি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: রফিকুল ইসলাম উত্তরা নিউজকে বলেন, ভিকটিমের পক্ষ থেকে কেউ মামলা না করায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করেছে।