কাশ্মীর নিয়ে আফ্রিদি ও চার ভারতীয় ক্রিকেটারের বাকযুদ্ধ


» কামরুল হাসান রনি | ডেস্ক ইনচার্জ | | সর্বশেষ আপডেট: ১৮ মে ২০২০ - ০৯:১৫:৩২ অপরাহ্ন

ঈশ্বর! প্রচারে থাকার জন্য একজন ব্যক্তির কী করতে হবে! তার উপর তাঁর নিজের দেশ কিনা ভিক্ষায় বাস করে। তাঁর উচিত কাশ্মিরকে ছেড়ে দিয়ে বরং নিজের দেশের জন্য কিছু করা।’- কাশ্মির ইস্যুতে পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদিকে নিয়ে এভাবে তির্যক মন্তব্য করেন ভারতীয় ক্রিকেটার সুরেশ রায়না।

শুধু রায়না নয় কাশ্মির ইস্যুতে আফ্রিদির করা এক মন্তব্যের উত্তর দিয়েছেন আরও তিন ভারতীর ক্রিকেটার।

সারাবিশ্ব যখন করোনাভাইরাসের কারণে আতঙ্কিত, তখন কাশ্মির ইস্যু নিয়ে উঠে পড়ে লেগেছেন ভারত ও পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা। শুরুটা করেছিলেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদি।

করোনার এই সঙ্কটময় মুহূর্তে পাকিস্তানে ত্রাণ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন আফ্রিদি। যার অংশ হিসেবে তিনি গিয়েছিলেন পাকিস্তান অধ্যুষিত আজাদ কাশ্মিরে।

সেখানে ত্রাণ কার্যক্রম চালানোর সময় এক ভিডিও বার্তায় কাশ্মিরিদের উপর ভারত নির্যাতন চালাচ্ছে এমন দাবি করেন আফ্রিদী। এছাড়াও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে আফ্রিদী বলেন, ‘বিশ্ব এখন প্রাণঘাতী ভাইরাসে আক্রান্ত। তবে মোদি মনেপ্রাণে এর চেয়েও বিপদজনক।’ এমনকি মোদির ইহকাল ও পরকালের জন্য শাস্তিও কামনা করেন আফ্রিদি।

এই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর থেকে এই নিয়ে উত্তর দিয়ে যাচ্ছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। ভারতের সাবেক ওপেনার ও বর্তমান ক্ষমতাসীন দল বিজেপির সাংসদ গৌতম গম্ভীর আফ্রিদির উদ্দেশ্যে দিয়েছেন এক কড়াকড়ি বার্তা। যেখানে তিনি জানিয়েছেন, কেয়ামত হয়ে গেলেও কাশ্মির পাবে না ভারত। তিনি টুইটারে লিখেন, ‘১৬ বছরের বালক আফ্রিদি বলছে, পাকিস্তানের ৭ লাখ সামরিক বাহিনীর পাশে ২০ কোটি জনগণ আছে। তারপরও ৭০ বছর ধরে কাশ্মির ভিক্ষা চেয়ে যাচ্ছে। আফ্রিদি, ইমরান এবং বাজওয়ার (পাকিস্তানের সেনাপ্রধান কামার জাভেদ বাজওয়া) মতো জোকাররা ভারত এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে বিষ ছড়িয়ে পাকিস্তানের জনগণকে বোকা বানাচ্ছে। কেয়ামত পর্যন্ত কাশ্মির পাবে না।’

এছাড়াও ভারতীয় দলের বাঁহাতি ওপেনার শিখর ধাওয়ান এ নিয়ে বলেছেন, কাশ্মির নিয়ে যত যাই বলা হোক না কেন, এই অঞ্চল আজীবন ভারতের কাছেই থাকবে। চাইলে পুরো ২২ কোটি পাকিস্তানি নাগরিক নিয়েও হাজির হতে পারেন আফ্রিদি, তবে তাতেও কোনো লাভ হবে না বলে জানিয়েছেন ধাওয়ান।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে তিনি লিখেন, ‘এই মুহূর্তে পুরো পৃথিবী যখন করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়ছে, তখন তোমার কি না কাশ্মির নিয়ে চিন্তা। কাশ্মির আমাদের (ভারত) ছিল, আমাদের আছে এবং আমাদেরই থাকবে। তুমি চাইলে ২২ কোটি জনগণ নিয়ে আসো। আমাদের একজনই সোয়া লাখের সমান।’

প্রায় একইরকম প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন সাবেক অফস্পিনার হরভজন সিংও। তিনি আফ্রিদির কথাগুলোকে মিথ্যা হিসেবে আখ্যা দিয়ে তাকে সীমার মধ্যে থাকতে বলেছেন। ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম ইন্ডিয়া টুডেকে এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেছেন, ‘আফ্রিদি যা বলেছে তা সত্যিই হতাশাজনক। আমাদের দেশ এবং প্রধানমন্ত্রীর ব্যাপারে যে কথা বলেছে, এটা মেনে নেওয়ার মতো নয়। আফ্রিদি আমাদের দেশের ব্যাপারে মিথ্যা বলছে। আমি শুধু বলবো, তার কথায় আমাদের কিছুই যায় আসে না। তার এসব কথা বলার কোন অধিকার নেই। নিজের সীমার মধ্যে থাকা উচিৎ তাঁর।’