করোনা ভাইরাস থেকে বাচার উপায় উপকরণ খুবই অপ্রতুল; মুফতি রেজাউল করিম

জাতীয় সংকটকালে বিত্তশালীরা অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ান: আমীর, ইসলামী আন্দোলন

» এইচ এম মাহমুদ হাসান | | সর্বশেষ আপডেট: ০১ এপ্রিল ২০২০ - ০৯:৪২:১৪ অপরাহ্ন

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম (পীর সাহেব চরমোনাই) মঙ্গলবার সকালে বরিশালের চরমোনাই এলাকায় করোনা ভাইরাসের মহামারীতে দূর্দশাগ্রস্থ পরিবারের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম (শায়খে চরমোনাই) ও ৫ নং চরমোনাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুফতি সৈয়দ এছহাক মুহাম্মাদ আবুল খায়ের। করোনা মহামারীতে সারাদেশ লকডাউন অবস্থায় দরিদ্র অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান পীর সাহেব চরমোনাই।

ইসলামী আন্দোলন আমীর বলেন, করোনা ভাইরাস থেকে বেচে থাকার উপায় উপকরণ নেই বললেও চলে। সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের মধ্যে সমন্বয়ের অভাব নিয়ে বিশেষজ্ঞরা মুখ খুলছেন। প্রয়োজনীয় ইকুইপমেন্ট না থাকায় ইতোমধ্যে ৩ জন ডাক্তার করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। রোগীর সংখ্যা বাড়লে ডাক্তারদের নিরাপত্তা কী হবে, সে ব্যাপারে বিশেষজ্ঞরা তাদের আশংকা প্রকাশ করেছেন। আমি আশা করি, সরকার যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে এ বিষয়ে প্রস্তুতির ঘাটতি বা দূর্বলতা দূর করার চেষ্টা করবেন।

ইসলামী আন্দোলন আমীর বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে যে গজব বিশ্বজুড়ে নেমে এসেছে তা মোকাবেলা করার সাধ্য কারো নেই। আল্লাহর কাছে বেশি বেশি ইসতেগফার করে আমাদের গুনাহ মাফ করানোর মাধ্যমে এর থেকে পরিত্রাণ পেতে পারি। এছাড়া যে কোনো বালা মুসিবত থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য আল্লাহর রাসূল সা. বেশি বেশি দান সদকাহ করতে বলেছেন। এজন্য মহামারী থেকে মুক্তি পেতে সামর্থবান মানুষের উচিত দরিদ্র মানুষের মধ্যে দান সদকাহ বেশি পরিমাণে করা।

তিনি বলেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ও সকল সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন স্থানে খাদ্যসামগ্রী, সাবান, স্যানিটাইজার, মাস্ক ইত্যাদি বিতরণ করছে। খেদমতে খালক্বের অংশ হিসেবে এই কার্যক্রম আরো বেগবান করতে সারাদেশের নেতাকর্মীদের তিনি নির্দেশ দেন।