উত্তরা নিউজ উত্তরা নিউজ
অনলাইন রিপোর্ট


এডিস মশা নির্মূলে ডিএনসিসির ‘চিরুনি অভিযান’ ও ভ্রাম্যমাণ আদালত অব্যাহত






এডিস মশা নির্মূলে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) চলমান ‘এডিস মশা ধ্বংসকরণ ও বিশেষ পরিচ্ছন্নতা অভিযান’ অর্থাৎ ‘চিরুনি অভিযান’ ও ভ্রাম্যমাণ আদালত অব্যাহত রয়েছে।

পরিচ্ছন্নতা ও মশক নিধনকর্মীগণ আজ চিরুনি অভিযানের তৃতীয় দিনে ডিএনসিসির ৩৬টি ওয়ার্ডে ১০ হাজার ৪৬০টি বাড়ি ও স্থাপনা পরিদর্শন করে মোট ২৪৮টি বাড়ি ও স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভা খুঁজে পায়। লার্ভা পাওয়া এ সব বাড়ি ও স্থাপনায় ‘এ বাড়ি/স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভা পাওয়া যায়’ লেখা স্টিকার লাগানো হয়। এ ছাড়া ৬ হাজার ৬৮৩টি বাড়ি ও স্থাপনায় এডিস মশার বংশবিস্তার উপযোগী স্থান/জমে থাকা পানি পাওয়া যায়। এডিস মশার বংশবিস্তারের উপযোগী এ সকল স্থান ধ্বংস করা হয়। প্রতিটি ওয়ার্ডের সংশ্লিষ্ট কাউন্সিলরগণ ‘চিরুনি অভিযান’ সক্রিয়ভাবে তত্বাবধান করছেন।

গত ২৫ আগস্ট থেকে ৩দিনে ৩৬টি ওয়ার্ডে সর্বমোট ৩১ হাজার ৯১৬টি বাড়ি ও স্থাপনা পরিদর্শন করে মোট ৮০৪টি বাড়ি ও স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভা খুঁজে পাওয়া যায়। এ ছাড়া ১৪ হাজার ৮১৯টি বাড়ি ও স্থাপনায় এডিস মশার বংশবিস্তার উপযোগী স্থান/জমে থাকা পানি পাওয়া যায়।

এডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মীর নাহিদ আহসান ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে বারিধারায় নির্মাণাধীন ‘নাভানা আজিজা প্লাজা’র প্রতিনিধিকে ১ লক্ষ টাকা এবং ‘আপন রিয়েল এস্টেট লিমিটেড’ এর প্রতিনিধিকে ২ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালত চলাকালে ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাকির হোসেন বাবুল উপস্থিত ছিলেন।

ডিএনসিসির ‘চিরুনি অভিযান’ ও ভ্রাম্যমাণ আদালত অব্যাহত থাকবে।

উত্তরা নিউজ/এস,এম,জেড