উদ্বোধন হলো ‘মাম্মিস কিচেন’ পিঠা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠান


» শিপার মাহমুদ (জুম্মান) | স্টাফ রিপোর্টার, উত্তরা নিউজ | সর্বশেষ আপডেট: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ - ১০:১৫:৪৪ অপরাহ্ন

উদ্বোধন হলো মাম্মিস কিচেন “মায়ের হাতে রান্না” পিঠা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠান। বঙ্গবন্ধু জন্ম-শত বার্ষিকী উপলক্ষে এ পিঠা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। ১৪ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার উত্তরা ১০ সেক্টরে বিকাল ৪ ঘটিকায় ফিতা কেটে অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করেন মাম্মিস কিচেনের প্রতিষ্ঠাতা ইনতেখাব আলম শুদ্ধ।


উদ্বোধনকালে মাম্মিস কিচেনের প্রতিষ্ঠাতা ইনতেখাব আলম শুদ্ধ বলেন, জন্মলাভ করার মাধ্যমে একজন মানুষ মা পেয়ে থাকে। তখন থেকেই ঘড়ির কাঁটার সাথে তাল মিলিয়ে বড় হতে থাকে ছোট্ট মানুষের বাচ্চাটি আমি, আপনি, সকলেই। মায়ের মতো আপন ও সন্মানিত অন্য আর কেউ নেই। স্বার্থহীন ভাবে একজন মা লালন পালন করে বড় করে তোলেন তাঁর সন্তানদের, অন্যদিকে তিনি হয়ে পরেন শারীরিক ভাবে বয়স্ক। আত্মার কোন পরিবর্তন হয় না। সকলের আত্মা একই রকম আমার, আপনার মতই। শরীর মুল্যহীন হয়ে পড়ে যখন তার ভিতরে আত্মা থাকেনা। একটা রেস্টুরেন্টে খাবার খাচ্ছিলাম। খাবারটি ছিল বেঁচে থাকার জন্য খাবার। যে খাবারগুলো মা রান্না করে খাইয়ে দিতো ঠিক সেই ধরনের খাবারগুলোই অর্ডার করেছিলাম। সবকিছুই ঠিক-ঠাক ছিল, শুধু ছিলো না মায়ের মমতা আর পরিশোধ করতে হয়েছে খাবারের মূল্য। ৪৭ বছর যাবৎ আমি আমার মায়ের সন্তান, যতদিন বেঁচে থাকব ততদিন এবং মৃত্যুর পরও। আমার জীবনে ৫০ হাজার এমন মিল আমি খেয়েছি, হয়তো আরো খাবো। শুধু আমি একা না আমার ভাই, বোন, আমার স্ত্রী, ছেলে, ভাই বোনদের ছেলেমেয়েরা, আত্মীয় স্বজন সবাইকেই তিনি শুধু সার্ভিস দিয়েই চলেছেন। সন্তান না চাইলেও মা সেবা দিয়েই যেন আনন্দপান। চুক্তি স্বাক্ষর করেও এমন দায়িত্ব কেউ পালন করেন না। চুক্তি ছাড়াই একজন মা নিরলসভাবে তা করে থাকেন।

রেস্টুরেন্টে আমি যে খাবারগুলোর অর্ডার দিয়েছি তার মূল্য ১২৬০ যদি মায়ের হাতের রান্না খাবারের মূল্য পরিশোধ করতে হতো তাহলে আমাকে ৬ কোটি ৩০ লক্ষ টাকা পরিশোধ করতে হতো। মায়ের কাছে সবসময়ই আমরা ঋণী। পৃথিবীতে কোন সন্তান তার মায়ের ঋণ শোধ করতে পারবে না এবং তা কোনো ক্রমেই সম্ভব নয়। রেস্টুরেন্টের খাবারের তুলনায় মায়ের হাতের রান্না খাবার অনেক বেশি সুস্বাদু, স্বাস্থ্যসম্মত ও মমতায় ভরা কিন্তু বিল পরিশোধ করতে হয়নি কোনদিনই। রেস্টুরেন্টের খাবারের টেবিলেই মনস্থির করে সিদ্ধান্ত নিলাম, যে মায়েরা এতো ত্যাগ স্বীকার করে, এতো যত্নে, মমতায় মাখা খাবার তৈরি করে সন্তানসহ পরিবারের সকলকে খাওয়ায়, তার মূল্যায়ন হোক এবং তাঁর কর্ম যোগ্যতার ভিত্তিতে ঘরে বসেই অর্থ উপার্জনের একটি নতুন জানালা খুলে দিতে চাই যা দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে। বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, বঙ্গবন্ধু কন্যা, জননেত্রী, দেশরত্ন শেখ হাসিনা তিনিও একজন মা দেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী হওয়া সত্ত্বেও তিনি রান্না এড়িয়ে যেতে পারেন নাই। তিনি আমাদের অহংকার ও শ্রেষ্ঠ মা। তাঁর রান্না করা কালীন একটি ছবি বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবর্ষ উপলক্ষে মায়ের হাতের রান্না পিঠার প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানের প্রচারণায় ব্যবহার করেছি যা অংশগ্রহণকারী সকল মায়েদের অধিক ভাবে অনুপ্রাণিত করবে।


উক্ত প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানটি প্রতিদিন সকাল ১০ থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত প্রতিদিন অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে ইচ্ছুক ও যারা বিচারক হতে আগ্রহী রেজিস্ট্রেশন করুন। প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে ৫টা পর্যন্ত রেজিস্ট্রেশন করা হবে।

রেজিস্টেশন ঠিকানা:

MOMMY’S KITCHEN
PLOT# 71/C, ROAD# 12/A, (NEAR IUBAT UNIVERSITY) SECTOR# 10, UTTARA, DHAKA-1230
VOICE: +8801610136619,
E-MAIL: intakhab.fns@gmail.com
Facebook: MOMMY’S KITCHEN BD