উত্তরা এসোসিয়েশনের যেসব গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের কথা জানালেন প্রফেসর মোঃ কামাল উদ্দিন


» মুহাম্মদ গাজী তারেক রহমান | উত্তরা নিউজ, স্টাফ রিপোর্টার | সর্বশেষ আপডেট: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ - ০২:১৩:০৯ অপরাহ্ন

বিশেষ করে আজ যেসব প্রস্তাবনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে তা হচ্ছে, এই অ্যাসোসিয়েশনের গঠনতন্ত্র সংশোধনের প্রসঙ্গটি। গঠনতন্ত্রে পরিবর্তন আনা হয়েছে। প্রথমত হচ্ছে, হচ্ছে এই সংগঠনের নাম আগে ছিল উত্তরা অ্যাসোসিয়েশন বর্তমানে সর্বসম্মতিক্রমে উত্তরা ওয়েলফেয়ার সোসাইটি নামে অভিহিত করা হয়েছে।

দ্বিতীয়ত, কমিটির মেয়াদ বৃদ্ধির ক্ষেত্রে এই সংগঠনে অনেক সময় দেখা যায়, যারা নির্বাচিত হয়ে আসে তাদের মেয়াদ মাত্র দুই বছর থাকার কারণে, তারা শুরু এবং শেষ কোনটাই ভালোভাবে করতে পারেননা। নির্বাচিতদের এক্ষেত্রে বিষয়গুলো বুঝতে সমস্যা হয়। সেজন্যই কার্যকরী কমিটির মেয়াদ দুই বছর থেকে তিন বছরের পরিবর্তন করার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়েছে।

তৃতীয়ত, উত্তরা ওয়েলফেয়ার সোসাইটির কার্যক্রম আরও গতিশীল করার লক্ষে সোসাইটির নেতৃবৃন্দ নির্বাচনের ক্ষেত্রে প্রত্যেকটি সেক্টর কল্যাণ সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণ পদাধিকারবলে কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য হিসেবে যুক্ত হবেন। যাতে করে তারা আন্তরিকতার সাথে সোসাইটির কার্যক্রমকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারেন।

চতুর্থ গুরুত্বপূর্ণ আরেকটি বিষয় হচ্ছে, আমাদের উত্তরায় রিক্সা সন্ত্রাস বন্ধ করতে একটি উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। কেননা আমরা লক্ষ্য করেছি, রিকশাওয়ালারা মহিলাদের সাথে খারাপ আচরণ করে যা ইচ্ছে তাই ভাড়া দাবী করে বসে থাকে। এতে অনেক সময় মান সম্মানের দিকে তাকিয়ে বেশি ভাড়া দিতে বাধ্য হচ্ছে সাধারণ মানুষ। এজন্য আজকের সভায় উত্তরার প্রতিটি সেক্টরের ভেতরে দূরত্ব অনুযায়ী রিক্সা ভাড়া নির্ধারণমূলক একটি চার্ট তৈরি করা হয়েছে, যা রিক্সাগুলোর পেছনে সেটে দেয়া হবে। যাতে করে ভাড়া সম্পর্কে যাত্রী এবং রিক্সাচালকদের মাঝে কথা কাটাকাটির অবসান ঘটে।
উত্তরা এসোসিয়েশন থেকে ‘উত্তরা ওয়েলফেয়ার সোসাইটি’ নামকরণে যে পরিবর্তন এসেছে সেটি কি পরবর্তীতে উত্তরার অন্যান্য সেক্টরগুলোতে কোন প্রভাব ফেলবে কিনা?

উত্তরা নিউজের এমন প্রশ্নের জবাবে, উত্তরা ওয়েলফেয়ার সোসাইটির কার্যনির্বাহী কমিটির সম্মাণিত সদস্য প্রফেসর কামাল উদ্দিন বলেন, এটা (উত্তরা ওয়েলফেয়ার সোসাইটি) যেহেতু কল্যাণ সমিতির প্যারেন্টস অর্গানাইজেশন তো এখানে প্রস্তাবনা এটিও রাখা হয়েছে যে, কল্যাণ সমিতি গুলো যেন কল্যাণ সমিতি নাম পরিবতন করে সেক্টর সোসাইটি করে ফেলে সেজন্য, আমরা কল্যাণ সমিতি গুলোকে/সোসাইটি হিসেবে আরোপিত করেছি এবং আমরা তাদেরকে সাজেশন দিয়েছি, তারা যেন তাদের হাউসে বসে এরকম সিদ্ধান্ত নিয়ে আসে এবং সোসাইটি থেকে তাদেরকে রিকোয়েস্ট করা হয়েছে, প্রস্তাবনা পেশ করা হয়েছে পাশাপাশি থেকে নাম পরিবর্তন সংক্রান্ত বিষয়টি বাস্তবায়ন করার ক্ষেত্রে তাদেরকে সোসাইটির পক্ষ থেকে চিঠি ইস্যু করা হবে।

প্রফেসর মোঃ কামাল উদ্দিন
প্রধান নির্বাচন কমিশনার (বর্তমান কমিটি), কার্যনির্বাহী সদস্য, উত্তরা ওয়েলফেয়ার সোসাইটি