উত্তরা আইডিয়াল কলেজে পরিচালকের বিরুদ্ধে নারী প্রিন্সিপালকে মারধরের অভিযোগ

বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট থানায় সাধারণ ডায়েরি

» মুহাম্মদ গাজী তারেক রহমান | উত্তরা নিউজ, স্টাফ রিপোর্টার | সর্বশেষ আপডেট: ০৫ অক্টোবর ২০১৯ - ১১:১৬:১০ অপরাহ্ন

স্টাফ রিপোর্টার: উত্তরা আইডিয়াল কলেজের প্রিন্সিপাল শাহনাজ ইসলামকে মারধর, অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ মেরে ফেলার হুমকি দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে। এই অভিযোগের তীর উক্ত কলেজের পরিচালক এস.এম হারুন রশিদ বাবু’র বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করা হয়েছে। জিডি নং-১৯৩।
জিডি সূত্রে জানা যায়, ২০০৭ সালে কলেজটির প্রিন্সিপাল শাহনাজ ইসলাম মাতৃত্বকালীন ছুটিতে থাকাবস্থায় কলেজের দায়িত্ব অত্র কলেজের ব্যাবস্থাপনা বিষয়ের প্রভাষক আকরাম হোসেনকে অর্পিত করা হয় এবং কলেজ দেখাশোনা করার জন্য শেয়ার হোল্ডার এস.এম হারুন রশিদ বাবু নিযুক্ত হন। পরবর্তীতে শাহনাজ ইসলাম ছুটি শেষে নিজ কর্মস্থলে যোগদান করলে তাকে শুধুমাত্র অধ্যক্ষের চেয়ারটি ছাড়া আনুষাঙ্গিক কোন কিছুই বুঝিয়ে দেয়া হয়নি।
জানা যায়, মাধ্যমিক-উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড কর্তৃপক্ষ বরাবর অত্র কলেজটি অডিটের নিমিত্তে পরিচালক এস.এম হারুন রশিদ বাবু গত ৩ অক্টোবর সকাল নয়টায় একটি চিঠিতে প্রিন্সিপাল শাহনাজ ইসলামকে স্বাক্ষর দিতে বললে, পরিচালক হারুন রশিদ বাবুর মনগড়া বক্তব্যের উপর স্বাক্ষর প্রদানে অসম্মতি জানান প্রিন্সিপাল শাহনাজ ইসলাম।
সূত্রে উল্লেখ করা হয় যে, চিঠিতে স্বাক্ষর না করায় পরিচালক হারুন রশিদ বাবু ক্ষিপ্ত হয়ে শাহনাজ ইসলামের গায়ে হাত তোলেন এবং অকথ্য ভাষায় গালাগাল করেন। এমনকি মামলা মোকদ্দমা বা থানা পুলিশের দ্বারাস্থ হলে শাহনাজ ইসলামকে মেরে ফেলার হুমকির বিষয়ে জিডিতে উল্লেখ করা হয়।
আরও উল্লেখ করা হয় যে, কলেজটির পরিচালক এস.এম হারুন রশিদ বাবু নিজের ইশারায় কলেজের যাবতীয় নিয়োগ, আয়-ব্যয়, অডিট ও ভর্তির যাবতীয় কাজ কর্ম প্রিন্সিপালের অগোচরে একাই করে থাকেন। কেবলমাত্র স্বাক্ষরের জন্য প্রিন্সিপাল শাহনাজ ইসলামের নিকট দ্বারস্থ হন। সূত্রে জানা যায়, প্রিন্সিপাল শাহনাজ ইসলামের বাইরে থাকার কারণে কলেজের গুরুত্বপূর্ণ কাজ, ছাত্র/ছাত্রীদের প্রয়োজন দেখিয়ে তার কাছ থেকে কলেজের খালি প্যাডে স্বাক্ষর করিয়ে নিতেন পরিচালক এস.এম হারুন রশিদ বাবু। বর্তমানে উক্ত খালি প্যাডে এস.এম হারুন রশিদ বাবু নিজের মনগড়া তথ্য যোগ করতে পারেন বলে আশঙ্কা করছেন শাহনাজ ইসলাম।
অপরদিকে, উপরোক্ত অভিযোগের বিষয়টিকে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র বলে অভিহিত করেছেন উত্তরা আইডিয়াল কলেজের পরিচালক এস.এম হারুন রশিদ বাবু। নিজ কলেজের প্রিন্সিপাল শাহনাজ ইসলামকে মারধর, প্রাণ-নাশের হুমকি প্রদানসহ অন্যান্য সকল অভিযোগের বিষয়ে অস্বীকার জানান তিনি। তার দাবী, সতের বছরে প্রতিষ্ঠিত উত্তরা আইডিয়াল কলেজকে ধ্বংস করতেই প্রিন্সিপাল শাহনাজ ইসলাম পাঁয়তারা করছেন।
এদিকে, বিষয়টি নিয়ে উত্তরা পশ্চিম থানার অফিসার ইনচার্জ তপন চন্দ্র সাহার কাছে জানতে চাইলে উত্তরা নিউজকে তিনি জানান, বিষয়টি আমরা জানতে পেরেছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।