উত্তরায় চলমান চক্রাকার বাস সার্ভিসের সেবার মান উন্নয়নে মত বিনিময় সভা


» মুহাম্মদ গাজী তারেক রহমান | উত্তরা নিউজ, স্টাফ রিপোর্টার | সর্বশেষ আপডেট: ১৯ জুন ২০১৯ - ০৯:০৯:১৪ অপরাহ্ন

স্টাফ রিপোর্টার: আজ (১৯ জুন,২০১৯) উত্তরা ৪ নং সেক্টরে অবস্থিত বাংলাদেশ ক্লাব লিঃ এ ‘উত্তরা এলাকায় চলমান চক্রাকার বাস সার্ভিসের সেবার মান উন্নয়ন মতবিনিময় সভা’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানটিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা-১৮ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন এমপি, বিশেষ অতিথি ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া, বিপিএম (বার) পিপিএম।

সকাল ১১:৪৫ মিনিটে পবিত্র কুরআনুল কারীম তিলাওয়াতের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া অত্র অনুষ্ঠানটির প্রথম পর্বে উপস্থিত উত্তরার বিভিন্ন সেক্টর কল্যাণ সমিতির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ উত্তরায় বসবাসরত সম্মানিত নাগরিকদের মুক্ত মতামত অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উত্তরার বিভিন্ন সমস্যা উঠে আসলে সমস্যাসমূহ সমাধানকল্পে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য প্রদান করেন সম্মাণিত সভাপতি, প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথি মহোদয়।

বিশেষ অতিথি ডিএমপি কমিশনার মোঃ আসাদুজ্জামান মিয়া, বিপিএম (বার), পিপিএম এর বক্তব্য: ভিডিওটি দেখতে ক্লিক করুন


এ সময় উত্তরা এলাকায় চলমান চক্রাকার বাস সার্ভিসের সেবার মান উন্নয়নসহ বাংলাদেশের বুকে উত্তরাকে আরও উন্নত হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার উপর বক্তব্য দেন বক্তারা। ঢাকা শহরের বিভিন্ন থানা এলাকাগুলোর মত উত্তরায় জন-নিরাপত্তা জোরদার, জঙ্গি অপ-তৎপরতারোধ, খুন, চাঁদাবাজি, ছিনতাই, মাদক নিয়ন্ত্রনসহ অত্র অঞ্চলকে একটি মডেল টাউন হিসেবে গড়ে তুলতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে সকল ধরনের সেবা প্রদান করা হবে বলে জানান বিশেষ অতিথি ডিএমপি কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া, বিপিএম (বার) পিপিএম। এসময় তিনি ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলামের ভ্রুয়সী প্রশংসা করেন।

অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন, এমপির বক্তব্যটি দেখতে। এখানে ক্লিক করুন


উক্ত অনুষ্ঠানটির প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঢাকা-১৮ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন, এমপি বলেন, পূর্বে উত্তরা এলাকাটি ইউনিয়নের আওতাভূক্ত থাকায় এ অঞ্চলের উন্নয়নে কাজে আমি সবসময় চেষ্টা চালিয়ে গিয়েছি। যেহেতু বর্তমানে এটি ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের নব-গঠিত কয়েকটি ওয়ার্ডে রূপ নিয়েছে তাই ডিএনসিসি কর্তৃপক্ষকেই উত্তরার উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে। সেক্ষেত্রে আমার পক্ষ থেকে সকল ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

অনুষ্ঠানটিতে যা বললেন ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম। ভিডিওটি দেখতে ক্লিক করুন


এদিকে, উত্তরাকে ঢাকা শহরের একটি জনগুরুত্বপূর্ণ এলাকা হিসেবে অভিহিত করে এই অঞ্চলটিকে অত্যাধুনিক টাউনে রূপ দিতে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম অত্র মত বিনিময় সভায় সম্মাণিত নাগরিকবৃন্দসহ উপস্থিত সকলের সহযোগিতা কামনা করে সভাপতির বক্তব্যে বলেন, উত্তরাকে একটি আধুনিক ও নাগরিকদের বসবাসের সু-উপযোগী হিসেবে গড়ে তুলতে হলে আমাদের সকলকেই সচেতন হতে হবে। বিশেষ করে, উত্তরা চক্রাকার এসি বাস সার্ভিস চলাচলের ক্ষেত্রে সকল প্রতিবন্ধকতা দূর করার জন্য প্রধান প্রধান সড়কগুলোতে অবৈধ রিক্সা-ভ্যান বন্ধ, ফুটপাত দখলমুক্তকরণ, স্কুল বাসের বিপরীতে ব্যক্তিগত গাড়ী ব্যবহারের প্রবণতা হ্রাস, এভিনিউ সড়কগুলোতে যানজট কমাতে সেক্টরের রোডগুলোতে নির্দিষ্ট পরিমাণ রিক্সা-ভ্যান চলাচলের ব্যবস্থা, এভিনিউ সড়কগুলোতে দূর্ঘটনা প্রতিরোধে হিউম্যান হলার নিয়ন্ত্রনসহ নানামুখী পদক্ষেপের কথা তুলে ধরেন।

এছাড়াও ডেঙ্গু প্রতিরোধে বাসা-বাড়ি পর্যায়ে সকলকে সচেতন হওয়া, সুষ্ঠু পার্কিং ব্যবস্থা তৈরি, ডিএনসিসি’ নাগরিক সেবামূলক অ্যাপ চালু, নব-গঠিত ওয়ার্ড সমূহের জন্য একনেকে ৪ হাজার ২শ কোটি টাকার বিশাল বাজেট অনুমোদন, ডিএনসিসির নিজস্ব ফান্ড হতে ওয়ার্ডগুলোর জন্য ২ কোটি ২৬ লক্ষ টাকা বরাদ্দ, ৩৩৩ এর মাধ্যমে নগরের যেকোন সমস্যার তথ্য ও অভিযোগ প্রেরণসহ উত্তরার উন্নয়ন বিষয়ক নানামুখী পদক্ষেপ ও পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন মেয়র আতিকুল ইসলাম।

এ সময় অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসি নবগঠিত ওয়ার্ডসমূহের কাউন্সিলরগণ, বিভিন্ন সেক্টর কল্যাণ সমিতির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, মসজিদের সম্মানিত ইমাম, সাংবাদিক, স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দসহ ডিএনসিসি ও ডিএমপির উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।