মুহাম্মদ গাজী তারেক রহমান মুহাম্মদ গাজী তারেক রহমান
উত্তরা নিউজ


উত্তরার কিংফিশার রেস্টুরেন্ট-এ রকমারি ‘ইফতারির আয়োজন’






স্টাফ রিপোর্টার: উত্তরা ১৩ নং সেক্টরের গরীব-ই-নেওয়াজ সড়কে অবস্থিত কিং ফিশার রেস্টুরেন্ট। পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে সম্মাণিত রোজাদারদের জন্য প্রবেশদ্বারে হরেক রকমের ইফতার আইটেম সাজিয়ে বসেছে কিং ফিশার রেস্টুরেন্ট কর্তৃপক্ষ। রোজমেরি চিকেন, গরুর মাংসের রোল, আস্ত ভাঁজা মাছ, গরুর মাংসের তেহারি, ঐতিহ্যবাহী সালাদ, আরবের খেজুরসহ বিভিন্ন প্রকার শরবতের ব্যবস্থা করেছে রেস্টুরেন্ট কর্তৃপক্ষ।

কিং ফিশার রেস্টুরেন্টের নীচ তলায় রোজাদারদের জন্য এমন আয়োজনে ভিড় জমাচ্ছেন উত্তরা ১৩নং সেক্টরসহ আশপাশে বসবাসরত বাসিন্দারা।

অন্যদিকে, কিং ফিশার রেস্টুরেন্টের দ্বিতীয় তলায় অত্যন্ত পরিপাটি পরিবেশে অতিথিদের জন্য মেহমানদারির ব্যবস্থা করা হয়েছে। পরিপূর্ণ আলোকসজ্জা, বসার জন্য আরামদায়ক চেয়ার ও দৃষ্টিনন্দন সাজানো টেবিলমালায় ফুটে উঠেছে এক মনোরম দৃশ্য।

কিং ফিশার রেস্টুরেন্টের এই ফ্লোরটিতে শিশুদের জন্য গড়ে তোলা হয়েছে সুন্দর বিনোদন ব্যবস্থা।

পবিত্র রমজান মাসের দ্বিতীয় দিন কিং ফিশার রেস্টুরেন্ট পরিদর্শনে গিয়ে দেখা যায়, দেশীয় মেহমানদের পাশাপাশি বিদেশী অতিথিরাও উপস্থিত হয়েছেন ইফতারির এই আয়োজনটিতে। এ যেন বাংলাদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের হাজার বছরের সংস্কৃতির সাথে নিজেদের একাত্ম করে নিয়েছে পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ছুটে আসা এই বিদেশী অতিথিগণ।

কিং ফিশার রেস্টুরেন্টটিতে গিয়ে কথা হয় অত্র প্রতিষ্ঠানটির এ জি এম সুলতান মাহমুদ সুমনের সাথে। এ সময় তিনি আমাদেরকে রমজান মাস উপলক্ষে রোজাদারদের জন্য বিভিন্ন সেবাসমূহ ও ব্যবস্থাপনার বিস্তারিত তুলে ধরেন।

বরকতে পরিপূর্ণ রমজান মাসে সম্মাণিত রোজাদারদের জন্য এই সুন্দর ব্যবস্থাপনা সত্যিই প্রশংসার দাবীদার।

পবিত্র এই মাসে রোজাদারদের জন্য নিজেদের সর্বোচ্চ সেবা বিলিয়ে দিবে কিং ফিশার রেস্টুরেন্ট কর্তৃপক্ষ এই প্রত্যাশায় আজকের মত এখানেই বিদায় নিচ্ছি। আল্লাহ্ হাফেজ।

প্রতিবেদক: মুহাম্মদ গাজী তারেক রহমান, ক্যামেরায়: আলিফ হাসান