ইতিহাস থেকে টিপু সুলতানের নাম মুছে ফেলতে চায় ভারত


» উত্তরা নিউজ | অনলাইন রিপোর্ট | সর্বশেষ আপডেট: ০১ নভেম্বর ২০১৯ - ০৮:২৯:৩৬ অপরাহ্ন

উপমহাদেশে ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম শ্রেষ্ঠ বীর মহীশুরের রাজা টিপু সুলতানকে ইতিহাস থেকে মুছে ফেলতে চাইছে ভারতের উগ্র হিন্দুত্তবাদী বিজেপি সরকার।

বিবিসি বাংলার এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, টিপু সুলতান সম্পর্কে কর্নাটকের স্কুলে যা যা লিখা আছে ইতিহাসের পাঠ্যবইগুলোতে তা সরিয়ে দেয়ার কথা ভাবছে রাজ্যের বিজেপি সরকার।

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বি এস ইয়েদুরাপ্পা জানিয়েছেন, টিপু জন্মজয়ন্তী আগেই বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। স্কুল পাঠ্যবইতে যা রয়েছে টিপু সুলতানের সম্পর্কে, আমরা সেগুলোও সরিয়ে দেয়ার কথা ভাবছি ।

এর আগে বিজেপির এক নেতা দাবি করেছিল, স্কুলের পাঠ্যবইগুলোতে টিপু সুলতানকে যেভাবে গৌরবান্বিত করা হয়, তা বন্ধ করা উচিত।

টিপু সুলতানের ওপরে বহুদিন ধরে গবেষণা করেছেন মহীশুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক সেবাস্টিয়ান যোসেফ।

তিনি বলেন, টিপু সুলতানকে ভারতীয় ইতিহাসের একজন ‘খলনায়ক’ হিসেবে তুলে ধরার চেষ্টা করা হচ্ছে। টিপু সুলতানকে নিয়ে যা বলা হচ্ছে, সেগুলো রাজনৈতিক কথাবার্তা। টিপু সুলতানকে একজন খলনায়ক করে তোলার এই প্রচেষ্টাটা কয়েক বছর ধরেই শুরু হয়েছে।

বিজেপি এবং উগ্র হিন্দুত্ববাদী সংগঠন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ বা আরএসএস টিপু সুলতান সম্বন্ধে কাল্পনিক কিছু কথা-বার্তা প্রচার করে আসছে। বিজেপি ও আরএসএসের লোকেরা এটা প্রচার করে যে টিপু সুলতান কুর্গ, মালাবারসহ নানা এলাকায় কয়েক লক্ষ্য হিন্দুকে মেরে ফেলেছিলেন এবং বলপূর্বক ধর্মান্তরিত করেছিলেন।

অধ্যাপক সেবাস্টিয়ান যোসেফ বিবিসিকে জানিয়েছেন, এসব তথ্যের কোনটাই সত্য নয়।  তিনি বলেন, টিপু সুলতানকে নিয়ে যত গবেষণা হয়েছে, তাতে এরকম তথ্য বিশেষ পাওয়া যায় না যে তিনি নির্দিষ্টভাবে হিন্দুদের ওপরেই অত্যাচার করেছিলেন

যোসেফ বলেন, মহাভারতের কাহিনীতে তো যারা নিহত হয়েছিলেন, তারাও হিন্দুই ছিলেন। আবার মারাঠারা যখন মহীশুর দখল করতে এসেছিল, তখন তারা অতি পবিত্র হিন্দু তীর্থ শৃঙ্গেরি মঠ ধ্বংস করে দিয়েছিল- এমনকি বিগ্রহটিও ধ্বংস করে দেয় তারা। শৃঙ্গেরি মঠ পুনর্নির্মাণে অর্থ দিয়েছিলেন টিপু সুলতান।

সুত্র: বিবিসি বাংলা