ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সর্বকালের সেরা দল অংশ নেবে

উত্তরা নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমঃ আজ মিরপুর হোম অফ ক্রিকেটের ড্রেসিংরুমে খালেদ মাহমুদ সুজন আলোচনায় বসেছিলেন মাশরাফিকে নিয়ে। ম্যাচ দেখতে এসে আলাপচারিতায় মেতেছিলেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নুও। আলোচনা নাকি শুধুই গল্প। তবে কি নিয়ে হঠাৎ এই বসা জানালেন সুজন,

“আজকে এমনিতেই কথা হয়েছিল। কীরকম টিম মাশরাফি দেখতে চায়। বা ক্যাপ্টেন কীভাবে চাচ্ছে এগুলো নিয়েই কথা হচ্ছিল। নাথিং স্পেশাল। নান্নু ভাইও এসেছিলেন।”

“ন্যাশনাল টিমের অনেক প্লেয়ার পারফর্ম করছে না, ফর্মে নেই অনেকে। তারপরও যারা ন্যাশনাল টিমের কারেন্ট প্লেয়ার, যারা খেলছে তাদের নিয়ে কোনো ডাউট আমাদের নেই। তারা অনেক ভালো প্লেয়ার, কন্ডিশন বিবেচনায় অনেক এক্সপেরিয়েন্স। ওটা নিয়েই আসলে কথা হচ্ছিল। এছাড়া আর কিছুই না।”

ন্যাশনাল টিমের যারা ঘরোয়া আসরে এবার পারফর্ম করছেন না। তাদের নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করার কিছু আছে কি?

“না, আমি মনে করি না খুব একটা ব্যাপার আছে। তারা ভালো প্লেয়ার, সবসময়ই পারফর্ম করে। আমরাতো এই বিশ্বকাপে অনেক বড় আশা করে আছি। সারাদেশই আশা করে আছে।”

সবশেষ ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের মতো ফেবারিট দলকে হারিয়ে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছিল বাংলাদেশ দল। ২০১৭ এর চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে দুর্দান্ত খেলা বাংলাদেশ বিদায় নিয়েছিল সেমিতে এসে। সাকিব-রিয়াদ’রা করেছিলেন ঐতিহাসিক এক রেকর্ড।  সব বিবেচনায় উপমহাদেশের বাইরে আইসিসির বড় ইভেন্টগুলোতে বাংলাদেশ সবসময়ই দুর্দান্ত। সুজন যেন বেশ ভালো ভাবেই এগিয়ে রাখলো মাশরাফিদের,

“তারপরও আমি এইটুকু বলব ছেলেদেরকে ইংল্যান্ডে কন্ডিশনে আগেও ভালো করেছি, এবারও ভালো করব। আপসেট হওয়ার কোনো কারণ নেই। আমরা এখন অনেক এক্সপেরিয়েন্স একটা দল। ইংলিশ কন্ডিশনে অনেক অভিজ্ঞতা আমাদের আছে। বিশ্বকাপের বাকি দলগুলো যদি দেখেন বাংলাদেশ কিন্তু প্রথম তিনটা দলের মধ্যেই থাকবে, এক্সপেরিয়েন্সের দিক থেকে।”

ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশের পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতা দেখাচ্ছে স্বপ্ন। বড় লক্ষ্য নিয়েই এবার বিশ্বকাপখেলতে ইংল্যান্ড যাবে মাশরাফি বিন মর্তুজার দল। আগামী ১৮ এপ্রিল ঘোষণা করা হতে পারে টাইগারদের মূল স্কোয়াড। সাকিব আইপিএলে, তামিম, রিয়াদ, মুশফিক খেলছেন না চলমান ডিপিএল। দীর্ঘ সূচির পর তাদের এই ব্রেকটাকে যেন ভালো ভাবেই দেখছেন খালেদ মাহমুদ সুজন। জানালেন আয়ারল্যান্ড ট্যুরের আগে অনুশীলন হবে তখন সব ঠিক হয়ে যাবে। বাংলাদেশ দল ফিরে পাবে তার পূর্ণতা।

“অনেক সিনিয়র ক্রিকেটার আছে। অনেকেই দারুণ ফর্মে আছে। অনেকে প্রিমিয়ার লিগ খেলতেছে না, এইটা অবশ্য একটা ভালো দিক। বিশ্রামেরও একটা দরকার ছিল। কারণ অনেক দিন ধরেই ক্রিকেটের সূচিতে তারা ব্যস্ত ছিল। আমি মনে করি টিম আবার যখন একসাথে হবে, ট্রেনিংয়ে আসবে বা আয়ারল্যান্ড ট্যুরের আগে অনুশীলন হবে তখন সব ঠিক হয়ে যাবে। এভ্রিথিং ইজ ফাইন।”

 

/এ.এইচ.বি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *