আশুলিয়ায় এসআই টুম্পা সাহার হস্তক্ষেপে বন্ধ হল বাল্যবিবাহ


» কামরুল হাসান রনি | ডেস্ক ইনচার্জ | | সর্বশেষ আপডেট: ১৪ মার্চ ২০২০ - ০৯:৫৪:৪৩ অপরাহ্ন

শহিদুল্লাহ সরকারঃ সাভারের আশুলিয়ায় থানা পুলিশের হস্তক্ষেপে বাল্য বিবাহ থেকে রক্ষা পেলো নবম শ্রেণির মেধাবী শিক্ষার্থী রুকসানা পারভিন রুমা (১৩)। বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) বিকেলে এলাকাবাসীর দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ ও ইউপি চেয়ারম্যানের ও এসআই টুম্পা সাহার হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহটি বন্ধ করা হয়।
জানা যায়, আশুলিয়ার হাজী জান মোহাম্মদ উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী পূর্ব ডেন্ডাবর গ্রামের লোকমান হোসেনের ১৩ বছর বয়সী কিশোরী কন্যা রুকসানা পারভীন রুমার সাথে একই থানার পলাশ বাড়ি গ্রামের নজরুল ইসলামের পুত্র উজ্জ্বল হোসেনের (২১) বিয়ে ঠিক করা হয়। বৃহস্পতিবার দিনভর কনের বাড়ীতে প্রীতিভোজ অনুষ্ঠান আয়োজনে প্রায় তিন শতাধিক লোকজনকে আপ্যায়ন করানো হয়।
পরে এলাকাবাসী বাল্যবিবাহের বিষয়টি আশুলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ রিজাউল হক দিপুকে জানালে তিনি তাৎক্ষনিক এসআই টুম্পা সাহা ও এসআই নুরুল হুদাকে ঘটনাস্থলে পাঠান। সেইসাথে স্থানীয় স্বনির্ভর ধামসোনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম ও ইউপি সদস্য হারুন মন্ডলকে কনের বাড়ীতে পাঠিয়ে দিলে তারা কনের বাড়ীতে ছুটে গিয়ে বাল্যবিবাহের  সম্পর্কে উভয় পরিবারকে অবগত করে তাদেরকে বুঝাতে সক্ষম হন।
আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) টুম্পা সাহা জানান, ওসি স্যারের নির্দেশক্রমে ঘটনাস্থলে গিয়ে বর এবং কনের পরিবারকে বাল্যবিবাহের সম্পর্কে বোঝাতে সক্ষম হই। পরে তারা কনের ১৮ বছর পূর্ণ হওয়ার আগে তাকে বিয়ে দিবেনা মর্মে অঙ্গিকার বদ্ধ হন।
এসআই টুম্পা সাহা আরও জানান, অবিলম্বে আশুলিয়া থানা এলাকা বাল্য বিবাহ মুক্ত ঘোষনা করা হবে। এখন থেকে আশুলিয়া থানা এলাকায় আর কোন বাল্যবিবাহ যেনো না হয় সে বিষয়ে ঢাকা জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার ও আশুলিয়া থানার অত্যন্ত বিচক্ষণ অফিসার ইনচার্জ (ওসি) স্যারের দিক নির্দেশনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এদিকে পুলিশের এ ধরণের উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সচেতন সাভার ও আশুলিয়াবাসী।