উত্তরা নিউজ উত্তরা নিউজ
অনলাইন রিপোর্ট


‘আর চলচ্চিত্র নির্মাণ করব না’






পরিচালক দেলোয়ার জাহান ঝন্টু। এক সময় তার নামেই প্রেক্ষাগৃহে সিনেমা দেখতে দর্শক ভিড় জমাতো। যদিও এখন তা অতীত। ‘জজ ব্যারিস্টার’, ‘মুজাহিদ’, ‘হাতি আমার সাথী’, ‘রূপসী নাগিন’, ‘নাচে নাগিন’, ‘রূপের রানী গানের রাজা’, ‘বিষে ভরা নাগিন’সহ ৭৩টি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন এই নির্মাতা। এছাড়া প্রায় সাড়ে তিন শ’র বেশি চিত্রনাট্য লিখেছেন। ‘গরীবের রাজা’ সিনেমার চিত্রনাট্য রচনা করে পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার।

কিন্তু খ্যাতিমান এই পরিচালক চলচ্চিত্র নির্মাণে অনীহা প্রকাশ করেছেন। চলচ্চিত্রের বর্তমান অবস্থা নিয়ে হতাশা আর আক্ষেপ প্রকাশ করেছেন। পরিষ্কারভাবে জানিয়েছেন, আর চলচ্চিত্র নির্মাণ করবেন না তিনি। ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এই প্রজন্মের শিল্পীদের নিয়ে, প্রশ্ন তুলেছেন তাদের পারশ্রমিক নিয়েও।

দেলোয়ার জাহান ঝন্টু  বলেন, ‘আর চলচ্চিত্র নির্মাণ করব না। চলচ্চিত্র নির্মাণে যে খরচ হয় তা তুলে আনা সম্ভব নয়। এতে করে প্রযোজকদের ঠকানো হয়। এই সমস্যা তৈরি হয়েছে শিল্পী সংকট থেকে। দুই একজন শিল্পীর দর্শক চাহিদা থাকলেও তাদের পারিশ্রমিক অনেক বেশি। স্বাভাবিক কারণে নির্মাণ খরচ বেড়ে যায়।’

ঢাকাই সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি কোন দিকে যাচ্ছে? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘একমাত্র শাকিব খানের সিনেমার সেল রিপোর্ট ভালো। কিন্তু এক শাকিবকে দিয়ে চলচ্চিত্র বাঁচবে না। শাকিবের সিনেমাও ব্যবসায়িকভাবে সফল হতে পারছে না। শাকিব যে পারিশ্রমিক নেয় সে পারিশ্রমিকের বাজার বাংলাদেশে নেই। অনেক বেশি পারিশ্রমিক নিচ্ছে। এত পারিশ্রমিক দিয়ে সিনেমা নির্মাণ করলে লোকসান হবে। এভাবে আর কত দিন লোকসান দিবেন প্রযোজক? তাছাড়া শাকিব কতদিন এভাবে একা টেনে যাবে। নতুন কেউ দাঁড়াতে পারছে না। এখনকার শিল্পীরাও দু-একটা কাজ করে বড় অংকের পারিশ্রমিক হাঁকিয়ে বসে থাকে। ভেবে দেখে না তাদের কতজন দর্শক আছে। এগুলো থেকে বের হতে না পারলে প্রযোজক চলচ্চিত্রে লগ্নি করতে আগ্রহী হবে না। কারণ লগ্নিকৃত টাকা ফেরত পাওয়ার নিশ্চয়তা থাকলে তবেই তারা প্রযোজনায় আসবে।’

দেলোয়ার জাহান ঝন্টু নির্মিত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা ‘আকাশ মহল’। এতে অভিনয় করেন ড্যানি সিডাক, ইমন, আইরিনসহ অনেকে।

উত্তরা নিউজ/এস,এম,জেড