আবার হয়তো হবে দেখা

মোঃ আবু বকর সিদ্দীক

» উত্তরা নিউজ টোয়েন্টিফর, ডেস্ক রিপোর্ট | | সর্বশেষ আপডেট: ০১ জুন ২০২০ - ০৯:১৯:৫৮ অপরাহ্ন

আবার হয়তো হবে দেখা,
যেদিন মিলে যাবে
হিসেবের শূন্য পাতা,
তবে নিভে যাবে কোজাগরীর
উজ্জ্বল প্রভা,
নিকশ কালো আধারে জ্বলবে
হিংস্র শাপদের চোখের তারা।

দাম দর সবই চলে,বাজারে বা হাটে,
প্রেমের বাজারে হৃদয় হয় বেচা কেনা শূন্য পয়সা দামে
কচলালে কদর কমে যায় প্রেমিক জন জানে,
বেশী হিসাব নিকাশে প্রেম তিতে হয়, ফেলে দেয় দূরে।

শান্তা, বাবুর প্রেমের কথা রটে মুখে মুখে,
মনের কথা মনেই রাখে বাঁধে ঘর আপন করে,
বাবু বলে শুন, আমার কথা মন দিয়ে,
খোকা হচ্ছে বড় চাই তার স্থায়ী ঠিকানা,
বাবা মাকে বলে লাখ পঞ্চাশেক টাকা আনো না!

শান্তা বলে আনতে পারি বটে,
তবে ফ্লাটি কিন্তু লিখে দিতে হবে মোর নামে,
বাবু বলে তা কি করে হয়, যদি জানে সবাই,
বলবে মোরে বৌয়ের আঁচলের নীচে
নিয়েছি আমি ঠাঁই,
তবে তোমার সম্পত্তি আন বেঁচে,
পারি, তবে খোকার পরিচয় কি
থাকবে নাকি গ্রামে,
ভাগাভাগি খিস্তিখেউড় লাগে অবিরত,
খোকা বলে তোমরা কিন্তু লড়াই কর বড়,
আমি কিন্তু চলে যাব, পথ থেকে তোমরা এবার সর।

এমন করে মা বাবা দুজনে গেল দুদিকে সরে,
নিঃসঙ্গ খোকা ইয়ার বন্ধু নিয়ে,
দিবানিশি ঘুরে।

শেষ বয়সে দুজনেই আসলো ঘরে ফিরে,
মনের বাগানে আর না ফুল ফোঁটে,
দিন চলে যায়, হিংস্র পশুর চোখের
তারা,নিজ নয়নে দেখে,
সারাদিন থাকে তারা একে অন্যের খুঁত ধরে।

যৌতুক আর স্বার্থে কথা পিতা মাতা ভাবে,
মাতা পিতা যার যার জেদ নিয়ে চলে নিজ ভূবনে,
কেউ কাকেও দেয় না ছাড় আপন দম্ভভরে,
কতো শিশু হয়পিষ্ট,জনক,
জননীর পদতলে,
ঔরস জাত শিশু আপন মনে নীরবে কাঁদে!!