উত্তরা নিউজ উত্তরা নিউজ
অনলাইন রিপোর্ট


আফ্রিকার প্রাক্তন কোচ ডমিঙ্গোকে কেন বিসিবি’র কোচ নিয়োগ?






বিশ্বকাপ ব্যর্থতায় স্টিভ রোডসকে বিদায় দেওয়ার পর বাংলাদেশের প্রধান কোচের পদটি শূণ্যই ছিল। শূন্য পদের জন্য আজ টাইগারদের নতুন কোচের নাম ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন কোচ রাসেল ক্রেগ ডমিঙ্গোকে বাংলাদেশ জাতীয় দলের নতুন কোচ হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে বিসিবি। আজ সংবাদ সম্মেলনে তাকে নিয়োগ দেওয়ার কারণ জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

বাংলাদেশের নতুন কোচ হওয়ার জন্য সাতজনের সাক্ষাৎকার নেয় বিসিবি। সেই সংক্ষিপ্ত তালিকায় ছিলেন মিকি আর্থার, মাইক হেসন ও রাসেল ডমিঙ্গো। সবাইকে টপকে এই পদের দায়িত্ব পান ডমিঙ্গো। তার সঙ্গে দুই বছরের জন্য চুক্তি করেছে বিসিবি।

দক্ষিণ আফ্রিকান কোচ ডমিঙ্গোকে বেছে নেওয়ার কারণ হিসেবে পাপন জানিয়েছেন, মূলত যিনি ফুলটাইম কাজ করবেন এমন একজনকেই কোচ হিসেবে চায় বাংলাদেশ। আর এতেই বাংলাদেশের নতুন কোচের দায়িত্ব পান ডমিঙ্গো।

পাপন বলেন, ‘আমরা রাসেল ডমিঙ্গোকে বেছে নিয়েছে কারণ তিনি আমাদের সঙ্গে পূর্ণ মেয়াদে কাজ করতে পারবেন। আমাদের হাতে অন্য প্রার্থীও ছিলেন। কিন্তু আমরা এমন কাউকে চাচ্ছিলাম যিনি দলের সঙ্গে পুরোটা সময় কাজ করতে পারবেন। ডমিঙ্গোর সঙ্গেই আমাদের এটা নিয়ে সমঝোতা হয়েছে।’

ডমিঙ্গোকে নেওয়া প্রসঙ্গে পাপন আরও বলেন, ‘রাসেল ডমিঙ্গোর সমৃদ্ধ কোচিং অভিজ্ঞতা আছে। সে অল্প বয়েসেই কোচিং ক্যারিয়ার শুরু করে। ২০১২ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার কোচ হয়। ২০১৫ তে ওডিআই বিশ্বকাপে কোচ ছিল। ২০১৭ পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার কোচ ছিল। এখনো সে সেখানকার এইচপির কোচ রয়ে গেছে। সে ২১ তারিখে এসে যোগ দেবে।’

অন্যদের চেয়ে ডমিঙ্গোকে এগিয়ে রাখা প্রসঙ্গে পাপনের বক্তব্য, ‘সামনের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আমাদের দলে কিছু নতুন মুখ ঢুকার সম্ভাবনা রয়েছে। কারণ আমাদের কিছু বিকল্প লাগতে পারে। এখন থেকেই নিচে থেকে ছেলেদের নিয়ে আসতে হবে। এই ধরণের কাজ করার জন্য রাসেল কিন্তু এটাই করতে চাচ্ছে। সে আমাদের অনূর্ধ্ব-১৯ দল, এইচপি এসব কিছু সমন্বিতভাবে কাজ করতে চাইছে। দক্ষিণ আফ্রিকায়ও এমন দায়িত্ব পালন করায় সে এ ক্ষেত্রে এগিয়ে। সে আমাদের চার বছরের একটা পরিকল্পনা দিয়েছিল। অন্যরা স্কাইপি কিংবা লিখিত দিলেও সে দিয়েছে সরাসরি। কাজেই এদিক দিয়ে চিন্তা করলে সে এগিয়ে ছিল।’

উত্তরা নিউজ/এস,এম,জেড