আইফোনের গুণাগুণ বর্ণনা


» উত্তরা নিউজ | অনলাইন রিপোর্ট | সর্বশেষ আপডেট: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ - ০৪:১১:১৫ অপরাহ্ন

নরম কণ্ঠে একে একে নতুন আইফোনের গুণাগুণ বর্ণনা করতেন জনি আইভ। পর্দায় দেখানো হতো সে ফোনের নানা দিক। আইফোনের ঘোষণা দেয়ার অনুষ্ঠানে অবিচ্ছেদ্য পর্ব ছিল এটি। এবার হয়েছে ব্যতিক্রম। নিজস্ব ডিজাইন স্টুডিও চালু করেছেন অ্যাপলের সাবেক চিফ ডিজাইন অফিসার স্যার জোনাথান আইভ। বর্তমানে অ্যাপল তার স্টুডিওর অন্যতম গ্রাহক। সে কারণেই হয়তো ১০ সেপ্টেম্বরের অনুষ্ঠানে এসেছিলেন। তবে আইফোন বা অ্যাপল ওয়াচের প্রচারণামূলক ভিডিওতে তার কণ্ঠ শোনা যায়নি। গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়ের সমাপ্তি বটে। অ্যাপলের নতুন পণ্যেও তার প্রভাব পড়েছে।

নতুন পণ্য : যারা এখনো জানেন না, তাদের জন্য বলে রাখি তিনটি নতুন আইফোন, দুটি সংস্করণে অ্যাপল ওয়াচ, সপ্তম প্রজন্মের আইপ্যাড, সাবস্ক্রিপশন নির্ভর নতুন গেমিং প্ল্যাটফর্ম এবং অ্যাপল টিভি প্লাস নিয়ে নতুন ঘোষণা দিতে অ্যাপলের প্রধান কার্যালয়ের স্টিভ জবস থিয়েটারে এককাট্টা হয়েছিলেন অনেকে। অ্যাপলের ওয়েবসাইট ও ইউটিউবে সে অনুষ্ঠান সরাসরি স¤প্রচারও করা হয়েছে। যথারীতি গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণাগুলো দিয়েছেন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা টিম কুক। এর ফাঁকে এসেছেন জ্যেষ্ঠ নির্বাহীরা।

যে পরিবর্তন এসেছে : গত এক যুগে আইফোনে বড়সড় পরিবর্তন এসেছে দুবার। বড়জোর তিনবার বলতে পারেন। এখন নতুন আইফোন মানে সূ² বিবর্তন একটু একটু করে অভ্যাস তৈরির মতো। আইফোন ১১ তেমন হইচই তুলতে পারেনি বটে, তবে আইফোন ১১ প্রো ও ১১ প্রো ম্যাক্স স্মার্টফোন দুটি নিয়ে অনেকেই মজা করতে ছাড়েননি। তবে এগুলোও সেই বিবর্তনেরই অংশ। আইফোন ১১ প্রো আর ১১ প্রো ম্যাক্সে এবার পেছনের ক্যামেরায় তিন লেন্স রাখা হয়েছে। এই তিন লেন্সে একটি টেলি ফটো, বাকি দুটি ওয়াইড ও আল্ট্রা ওয়াইড। ২০১৩ সালের পর আইফোন এবার বেশ রঙিন। ছয়টি রঙে এসেছে আইফোন ১১। প্রো সিরিজেও যুক্ত হয়েছে রঙের নতুন শেড। অ্যাপল স্টোরে এখন থেকে ‘অ্যাপল ওয়াচ স্টুডিও’ নামের সেবা মিলবে যেখানে স্মার্টঘড়ির মূল কাঠামো (বডি) ও বেল্ট নিজের মতো সাজিয়ে নেয়া যাবে। আরেকটি বিষয় হলো, অ্যাপল এখন স্থায়িত্ব নিয়ে কথা বলছে। প্রচারণামূলক ভিডিওগুলোতে শক্ত কাচের উল্লেখ বারবার করা হয়েছে, পানি ও ধুলারোধী বলছে ফলাও করে। দামও এবার শুরু হয়েছে ৬৯৯ ডলার থেকে।

নতুন আইফোন : আপনি কি একই ধরনের অসমতল কয়েকটি গর্ত একসঙ্গে দেখলে ভয় পান? তাহলে আপনি ‘ট্রাইপোফোবিয়া’ সমস্যায় ভুগছেন। একই ধরনের অনেক অসমতল গর্ত বা এমন কোনো কিছুর সঙ্গে টক্কর খাওয়ার সমস্যাটি ট্রাইপোফোবিয়া নামে পরিচিত। গবেষকেরা বলছেন, প্রায় ১৬ শতাংশ মানুষের মধ্যে ট্রাইপোফোবিয়া রয়েছে। অ্যাপলের নতুন আইফোন ১১ প্রো ও ১১ প্রো ম্যাক্সের ক্যামেরার নকশা দেখে অনেকেই এই ফোবিয়া সমস্যা হতে পারে। প্রযুক্তি বিশ্বে ১০ সেপ্টেম্বর ঘোষণা দেয়া নতুন আইফোন ঘিরে আলোচনার পাশাপাশি এ থেকে সৃষ্ট সমস্যার বিষয়গুলোও উঠে আসছে। অ্যাপলের নতুন আইফোন দেখার পর থেকে ট্রাইপোফোবিয়া বাড়ছে বলে অনলাইনে কয়েকটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।

ওয়েবএমডিতে বলা হয়েছে, ট্রাইপোফোবিয়ায় ভোগা ব্যক্তির গর্তের প্যাটার্নে কোনো নকশা দেখলে চরম শারীরিক ও মানসিক সমস্যা তৈরি হয়। বৃত্তের গুচ্ছের আকার যত বড় হবে, ততই তাদের অস্বস্তি বাড়বে। অবশ্য, আমেরিকান সাইকিয়াট্রিক অ্যাসোসিয়েশন (এপিএ) ট্রাইপোফোবিয়াকে সত্যিকারের ফোবিয়া বলে স্বীকৃতি দেয়নি। বিশেষজ্ঞের মতে, এটা ভয় পাওয়ার চেয়েও বিরক্তি উৎপাদন করে বেশি। আইফোন উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান নিশ্চয়ই ক্রেতাদের এমন নকশা করে বিরক্তি করতে চাইবে না। স¤প্রতি ট্রাইপোফোব পরীক্ষায় অংশ নেয়া এক ব্যক্তি বলেন, ‘ছোট অনিয়মিত বৃত্তাকার গর্তগুলোর মুখোমুখি হলে তারা আমার মুখে ভেতর চলে যায়, কান্নাকাটি করে পুরো শরীর ঝাঁকি দিতে শুরু করে।’ ট্রাইপোফোবে ভোগা ব্যক্তিদের আইফোন ১১ প্রো ও প্রো ম্যাক্সের ক্যামেরার নকশার দিকে তাকালে মাথাব্যথা, ঝাঁকি, শ্বাসকষ্ট, দ্রুত হৃৎস্পন্দন, ঘাম ও চুলকানির মতো নানা সমস্যা হতে পারে।

উত্তরা নিউজ/এস,এম,জেড