উত্তরা নিউজ I সারাবাংলা রিপোর্ট উত্তরা নিউজ I সারাবাংলা রিপোর্ট


অর্থের প্রলোভন দেখিয়ে হতদরিদ্র গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা






কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি: গাজীপুরের কালীগঞ্জে অর্থের প্রলোভন দেখিয়ে হতদরিদ্র এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ড ব্যাপারি বাড়িতে। গত মঙ্গলবার বিকেলে ধর্ষিতা কালীগঞ্জ থানায় এসে নিজে বাদী হয়ে ধর্ষক বদিউজ্জামান বদির (৫০) নামে একটি মামলা দায়ের করেন।
পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ৪ মাস পূর্বে জামালপুর ইউনিয়নের মৃত কুদ্দুস ফকির ওরফে মগার মেয়ের (২২) সাথে একই ইউনিয়নের মৃত আজিমদ্দিনের ছেলে আমিরুল ইসলামের বিয়ে হয়।

অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নির্মান শ্রমিক আমিরুল সকালে কাজের উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বেরিয়ে গেলে গত ২৯ জুন শনিবার সকাল ১০ টার দিকে একই এলাকার মৃত সিরাজুল ফকিরের ছেলে অটোরিকশা চালক বদিউজ্জামান বদি ওই গৃহবধূর বাড়িতে ঢুকে অর্থের প্রলোভন দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। এ সময় প্রতিবেশী মহিলারা অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকা অবস্থায় তাদেরকে হাতে-নাতে ধরে ফেলে। পরে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে স্বামীর বাড়ির লোকজন ভিক্টিমকে বাড়ি থেকে বের করে। পরে অসহায় ওই গৃহবধূ তার বাপের বাড়ি চলে যায়। ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক আলোড়ন সৃস্টি করে। গত মঙ্গলবার সকালে স্বামী আমিরুল ইসলাম শ্বশুর বাড়িতে গিয়ে তার স্ত্রীকে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসে। ধর্ষিতা বিষয়টি পরে স্থানীয় মেম্বার ও চেয়ারম্যানকে অবগত করেন। ভিক্টিমের পরিবার অভিযোগ করে বলেন, আমরা গরীব তাই অপরাধীরা আমাদেরকে নানাভাবে ভয়-ভীতি দেখাচ্ছে।
স্থানীয় ইউপি মেম্বার নাজমুল শেখ জানান, ঘটনাটি শুনেছি। ভিক্টিমের পরিবারকে থানায় মামলা করার জন্য বলেছি।

এ ব্যাপারে জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহাবুবুর রহমান খান ফারুক মাষ্টার বলেন ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে, ঘটনাটি শুনে চৌকিদার ছিদ্দিককে এলাকায় পাঠিয়েছি। কিন্তু অভিযুক্ত বদিকে এলাকায় পাওয়া যায়নি। ঘটনার পর থেকে সে পলাতক রয়েছে।

এ সংক্রান্ত বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) রাজীব চক্রবর্তী বলেন, মঙ্গলবার বিকেলে ধর্ষিতা থানায় এসে নিজে বাদী হয়ে ধর্ষক বদিকে আসামী করে মামলা করেছেন। বদিকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।

উত্তরা নিউজ/গাজী-মো: আবদুর রহমান