অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে ব্যাংকগুলোকে ভূমিকা রাখতে হবে


» কামরুল হাসান রনি | ডেস্ক ইনচার্জ | | সর্বশেষ আপডেট: ১৭ মে ২০২০ - ১১:২২:৩৪ পূর্বাহ্ন

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস যে ভাবে আগ্রাসন চালাচ্ছে তা কবে নাগাদ থামবে কোনো নিশ্চয়তা নেই। এ অবস্থায় অর্থনৈতিক ও আর্থিক পুনরুদ্ধারে ব্যাংকিং খাতের সুসংগঠিত কার্যপ্রস্তুতি প্রয়োজন। সরকার ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের করোনা সংক্রান্ত অর্থনৈতিক ও আর্থিক কার্যক্রমে ব্যাংকগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। যেক্ষেত্রে ব্যাংকগুলোকে অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে সহযোগিতার পাশাপাশি নিজস্ব ঝুঁকি ব্যবস্থাপনাতেও মনোযোগ দেওয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়েছে।

করোনাভাইরাস এবং দেশের অর্থনীতিতে ব্যাংকিং খাতের করণীয় সংক্রান্ত বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্টের (বিআইবিএম) প্রতিবেদনে এসব কথা উঠে এসেছে।

শনিবার (১৬ মে) ‘ইকোনমিক, মানিটারি অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সেক্টর ইমপ্লিকেশনস অব কোভিড-১৯: প্রিপেয়ারডনেস অব ব্যাংকস ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক এক অনলাইন  কর্মশালায় উপস্থাপিত গবেষণা প্রতিবেদনে এসব কথা বলা হয়েছে।

কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন বিআইবিএমের মহাপরিচালক ড. মো. আখতারুজ্জামান। কর্মশালায় গবেষণা প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন বিআইবিএমের অধ্যাপক এবং পরিচালক (প্রশিক্ষণ) ড. শাহ মো. আহসান হাবীব।

এছাড়া কর্মশালায় আরও বক্তব্য রাখেন বিআইবিএমের ড. মোজাফফর আহমদ, চেয়ার প্রফেসর ড. বরকত-এ -খোদা, মিউচুয়্যাল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক আনিস এ. খান, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলী হোসেন প্রধানিয়া, মিউচুয়্যাল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ মাহবুবুর রহমান, ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফারুক মঈনুদ্দিন, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাহবুব-উল-আলম, স্ট্যান্ডার্ড চাটার্ড ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নাসির এজাজ বিজয়, বিআইবিএমের অধ্যাপক এবং পরিচালক (গবেষণা, উন্নয়ন এবং পরামর্শ) ড. প্রশান্ত কুমার ব্যানার্জি; বিআইবিএমের অধ্যাপক এবং পরিচালক (ডিএসবিএম) মোহাম্মদ মহীউদ্দিন ছিদ্দিকী, বিআইবিএমের অধ্যাপক নেহাল আহমেদ।

মূল প্রবন্ধে বিআইবিএমের অধ্যাপক এবং পরিচালক (প্রশিক্ষণ) ড. শাহ মো. আহসান হাবীব করোনা পরবর্তী পরিস্থিতিতে বাংলাদেশে ব্যাংকগুলোর সুসংগঠিত প্রস্তুতির একটি রূপরেখা উপস্থাপন করেন।

বিআইবিএমের পক্ষ থেকে আলোচনা অনুষ্ঠানের আগে খসড়া প্রবন্ধটি গত ১৫ মে সবার মতামতের জন্য অনলাইনে সরবরাহ করা হয়েছিল। অনুষ্ঠানটি বিআইবিএমের ফেসবুক পেজে সরাসরি ওয়েবকাস্ট করা হয়। অনুষ্ঠানটি প্রবন্ধকার ড. আহসান হাবীবের উপস্থাপনায় পরিচালিত হয়।