tamim-iqbal

ওয়েস্ট ইন্ডিজের দেয়া ৩৩২ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকারের জোড়া সেঞ্চুরিতে ৫১ রানের জয় পেয়েছে বিসিবি একাদশ।

ইনজুরি থেকে দলে ফিরেই সেঞ্চুরি করেছেন তামিম ইকবাল। তার সেঞ্চুরির ম্যাচে শতরানের ইনিংস খেলেছেন তারকা ক্রিকেটার সৌম্য সরকার। তামিম-সৌম্যর জোড়া সেঞ্চুরিতে প্রস্তুতি ম্যাচে ডিএল মেথডে ৫১ রানে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) একাদশ।

৭৩ বলে ১৩ চার ও চরটি ছক্কায় ১০৭ রান করেন তামিম ইকবাল। ৮৩ বলে ৭ চার ও ৬ ছক্কায় ১০৩ রান করেন সৌম্য সরকার। প্রস্তুতি ম্যাচে সেঞ্চুরি করা সৌম্য, সবশেষ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে সেঞ্চুরি করেছেন।

ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে মুখোমুখি হয় বিসিবি একাদশ।

বৃহস্পতিবার সাভারে বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের (বিকেএসপি) তিন নম্বর মাঠে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে কোনো সেঞ্চুরি ছাড়াই দুই ফিফটিতে ৮ উইকেটে ৩৩১ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৮১ রান করেন শাই হোপ। এছাড়া ৫১ বলে অপরাজিত ৬৫ রান করেন রোস্টন চেস। ৩২ বলে ৪৮ রান করেন ফেবিয়ান অ্যালান। বিসিবির হয়ে রুবেল হোসেন, মেহেদী হাসান রানা ও নাজমুল ইসলাম অপু।

চ্যালেঞ্জিং স্কোর তাড়া করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে ৮১ রান করে ফেরেন ওপেনার ইমরুল কায়েস (২৭)। এরপর তিনে ব্যাটিংয়ে নামা জাতীয় দলের আরেক ওপেনার সৌম্য সরকারকে সঙ্গে নিয়ে ফের ১০৪ রানের জুটি গড়েন তামিম ইকবাল।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত সবশেষ এশিয়া কাপে হাতের ইনজুরিতে আক্রান্ত হন তামিম। দেশ সেরা এই ওপেনার এরপর দীর্ঘ আড়াই মাস ক্রিকেটের বাইরে ছিলেন। ইনজুরি কাটিয়ে দলে ফিরেই দুর্দান্ত ব্যাটিং করেন তামিম।

প্রস্তুতি ম্যাচে মাত্র ৭৩ বলে ১৩ চার ও চরটি ছক্কায় ১০৭ রান করে সাজঘরে ফেরেন দেশসেরা এই ওপেনার। ঝলমলে শুরুর পরও ব্যাটিংয়ে নেমে সুবিধা করতে পারেননি মোহাম্মদ মিঠুন ও আরিফুল হকরা। আরিফুল ২১ রান করলেও মাত্র ৫ রানে ফেরেন মিঠুন।

লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যানদের আসা-যাওয়ার মিছিলে একাই লড়াই চালিয়ে যান সৌম্য। ৪১ ওভারে বিসিবি একাদশের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ৩১৪ রান। আলোক স্বল্পতার কারণে ডিএল মেথডে বাংলাদেশ ৫১ রানে জয় পায়।



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / টি/আর

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা